ব্যস্ত জীবনে সময় বাঁচানোর জন্য কয়েকটি ইজি মেকআপ হ্যাকস!

makeup

অফিসে বা কোনো পার্টিতে যাওয়ার জন্য তাড়াহুড়ো করে রেডি হতে যেয়ে মাশকারা চোখের পাতায় লেপ্টে গেলো, অথবা লিপস্টিক ছড়িয়ে গেলো! একে তো জলদি যাওয়ার তাড়া, তার উপর এভাবে সময় নষ্ট! এখন এসব ফিক্স করতে গেলেই আরও দেরি হয়ে যাবে। এমন সমস্যায় কমবেশি আমরা সবাই পড়ি। হুটহাট এসব বিড়ম্বনায় পড়তে না চাইলে কিছু মেকআপ হ্যাকস জেনে রাখতে পারেন। ব্যস্ত জীবনে সময় বাঁচানোর জন্য ইজি কয়েকটি মেকআপ হ্যাকস সম্পর্কেই জানাবো আজ।

ব্যস্ত জীবনে ইজি লাইফের জন্য কয়েকটি মেকআপ হ্যাকস

প্রতিদিনই নানা কাজে আমাদের ছুটে বেড়াতে হয়। কাজে বের হওয়ার আগে মেকআপ করতে গেলেই কোনো না কোনো ঝামেলা হয়েই যায়। তাই মেকআপ প্রোডাক্ট ব্যবহারের আগে যদি হ্যাকস জানা থাকে, তাহলে ব্যস্ত জীবনে সময়ও বাঁচে, আবার ট্রিকসও জানা থাকে।

ফাউন্ডেশন হ্যাকস

১) গরমে ফেইসে বেশি কিছু অ্যাপ্লাই করলে বেশ অস্বস্তি হতে থাকে, আবার মুখও ঘামতে থাকে। এ পরিস্থিতি এড়াতে ফাউন্ডেশন বাদ না দিয়ে বরং একে টিন্টেড ময়েশ্চারাইজার বানিয়ে ফেলুন। সমপরিমাণ ফাউন্ডেশন ও ময়েশ্চারাইজার একসাথে মিশিয়ে নিন। যদি ফেইসে গ্লোয়ি ভাব চান, তাহলে ২/১ ড্রপ জেল ব্রোঞ্জার মিক্স করে নিন। একইসাথে গ্লোয়ি ও ডিউয়ি ভাব আনতে চাইলে অ্যাড করুন লিকুইড হাইলাইটার।

ব্যস্ত জীবনে ইজি মেকআপ হ্যাকস

২) ফাউন্ডেশন বা কনসিলার অ্যাপ্লাইয়ের পরিমাণ যদি বেশি হয়ে যায়, তাহলে কেকি হওয়াটাই স্বাভাবিক। এ পরিস্থিতিতে পড়লে একটি ব্লটিং পেপার দিয়ে কেকি হয়ে যাওয়া জায়গাটুকু হালকা প্রেস করে নিন। এতে এক্সেস অয়েল ব্লটিং পেপার অ্যাবজর্ব করে নিবে। যদি পেপার না থাকে, তাহলে ফেইস মিস্টও অ্যাপ্লাই করে নিতে পারেন।

কনসিলার হ্যাকস

১) অনেক সময় দোকান থেকে ফাউন্ডেশন কিনে আনার পর বাসায় এসে স্কিনে আর স্যুট করে না, আর অ্যাপ্লাই করার কিছুক্ষণ পর ফেইসে দেখা দেয় কালচেভাব। এই প্রবলেম সলভ করতে পারেন কনসিলারের মাধ্যমেই। ফাউন্ডেশন ডার্ক হলে স্কিনটোনের চেয়ে এক শেইড লাইট কনসিলার আর লাইট হলে ডার্ক কালারের কনসিলার মিক্স করে নিন। এতে বেইজ মেকআপ পারফেক্ট হবে। শেইড নিয়েও আর ভাবতে হবে না।

২) আই মেকআপ ব্রাইট ও গর্জিয়াস দেখানোর জন্য বেইজ মেকআপ কমপ্লিট করার পর আইলিডে কনসিলার অ্যাপ্লাই করে নিন। এবার আপনার পছন্দমতো গ্লিটারি বা শিমারি আইশ্যাডো অ্যাপ্লাই করে নিন। চোখের পাতায় কনসিলার অ্যাপ্লাই করে নিলে শ্যাডোর কালার বেশ সুন্দরভাবে ফুটে ওঠে।

৩) আপনি কি জানেন ডার্ক শেইডের কনসিলার দিয়ে সহজেই ফেইস কনট্যুর করতে পারবেন? কনট্যুরিং এরিয়া অর্থাৎ চিন এরিয়ায়, গালের দুই পাশে আর কপালের দুই পাশে অ্যাপ্লাই করে নিলে ফেইস শেইপ শার্প দেখাবে।

হাইলাইটার হ্যাকস

১) ফুলার লিপস খুব সহজেই করা যায় হাইলাইটার দিয়ে! কীভাবে? কিউপিড বো তে হাইলাইটার অ্যাপ্লাই করে নিন। এবার লিপ লাইনারের সাহায্যে লিপস লাইন করে নিন। এবার লাগিয়ে ফেলুন পছন্দের লিপস্টিকটি। দেখুন লুকটাই কেমন গর্জিয়াস হয়ে গিয়েছে!

২) কনসিলার লাগানোর পরও আন্ডার আই এরিয়া ব্রাইট দেখাচ্ছে না? তাহলে কনসিলারের সাথে কয়েক ফোঁটা লিকুইড হাইলাইটার মিশিয়ে নিন। এবার ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নিন। দেখবেন আন্ডার আই এরিয়া বেশ ব্রাইট ও গ্লোয়ি দেখাবে।

মাশকারা হ্যাকস

মাশকারা হ্যাকস

১) অনেক সময় মাশকারা অ্যাপ্লাই করতে যেয়ে আইলিডে বা চোখের নিচের এরিয়ায় ছড়িয়ে যায়। মেকআপের একদম শেষের দিকে এসে এমন হলে কার না বিরক্ত লাগে বলুন? আর এই দাগ ওঠানোর জন্য কটনপ্যাড বা টিস্যু দিয়ে ডলতে যেয়ে আইমেকআপের অবস্থা হয়ে যায় একদম বাজে! মাশকারা ছড়িয়ে গেলে একটি কটনবাডে অল্প পরিমাণে মেকআপ রিমুভার বা মাইসেলার ওয়াটার লাগিয়ে নিন। ছড়িয়ে যাওয়া এরিয়াটুকুতে কটনবাড দিয়ে ক্লিন করে নিন। অল্প সময়েই আইলুক সেট হয়ে যাবে।

২) মাশকারা অ্যাপ্লাইয়ের আগে চোখের পাতায় চামচের উল্টো দিকের গোলাকার অংশটি ধরে রাখুন। এবার এ অবস্থাতেই মাশকারা অ্যাপ্লাই করুন। ঠিক একইভাবে চোখের নিচের অংশে চামচ ধরে রেখে নিচের পাপড়িতে মাশকারা অ্যাপ্লাই করে নিন। এতে মাশকারা ছড়িয়ে যেয়ে আইলুক নষ্ট হবে না।

৩) মাশকারা অ্যাপ্লাই করার আগে আইল্যাশে একটু ট্রান্সলুসেন্ট পাউডার লাগিয়ে নিন। এতে ল্যাশগুলো ফুলার লাগে, আবার সহজে স্ম্যাজও হয়ে যায় না।

আইল্যাশ হ্যাকস

১) পারফেক্ট আইলুকের জন্য ফেইক আইল্যাশের ব্যবহার বেশ কমন। তবে অনেকেই এই ল্যাশ ব্যবহারে অভ্যস্ত নয়। তাই ন্যাচারাল ল্যাশ কার্ল করে নেন অনেকেই। কীভাবে আপনি চাইলেই ল্যাশ অনেকক্ষণ কার্ল করে রাখতে পারবেন জানেন? হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে! আইল্যাশ কার্লার ব্যবহারের আগে হেয়ার ড্রেয়ার দিয়ে হালকা গরম করে নিন। এবার নরমালি কার্ল করুন। খুব সহজেই পার্থক্য চোখে পড়বে।

আইল্যাশ হ্যাকস

২) ফেইক আইল্যাশ সব সময় চোখের মাপমতো হয় না। তাই ওভাবেই পরা হলে দেখতে ভালো লাগে না। তাই লাগানোর আগে চোখের মাপ অনুযায়ী কেটে নিন। ক্যাট আই লুক ক্রিয়েট করতে চাইলে ল্যাশ হাফ করে কেটে চোখের আউটার কর্ণারে অ্যাপ্লাই করে নিন।

৩) ফেইক আইল্যাশ তোলার সময় অনেকেই হাত দিয়ে টান দিয়ে তোলার চেষ্টা করেন। এতে ন্যাচারাল ল্যাশেরও ক্ষতি হতে পারে। তাই ল্যাশ খোলার জন্য কটনবাডে মেকআপ রিমুভার বা মাইসেলার ওয়াটার লাগিয়ে জেন্টলি ল্যাশলাইনে রাব করুন। ল্যাশ আস্তে করে খুলে আসবে।

লিপস্টিক হ্যাকস

১) বুলেট লিপস্টিক অ্যাপ্লাইয়ের ঝক্কি কী বলুন তো? বেশিক্ষণ ঠোঁটেও থাকে না, আবার অল্প সময়েই ঠোঁটের আশেপাশে ছড়িয়ে যায়। এ সমস্যা এড়াতে লিপস্টিক লাগানোর পর ঠোঁটের উপর একটি টিস্যু পেপার ধরুন। এবার এর উপর ব্রাশ দিয়ে পাউডার লাগিয়ে নিন। এতে অনেকটা সময় লিপস্টিক ছড়ানোর চান্স থাকবে না।

২) লিপস্টিকের লং লাস্টিং কভারেজ চাইলে একই কালারের লিপ লাইনার দিয়ে লিপস ড্র করে নিন। এতে লিপস্টিকও জায়গামতো থাকে, ছড়িয়ে যায় না।

৩) আমাদের অনেকের ঠোঁটেই হাইপারপিগমেন্টেশন বা প্যাচেস থাকে। এই ইমপারফেকশন হাইড করার জন্য ঠোঁটে অল্প পরিমাণ ফাউন্ডেশন বা কনসিলার লাগিয়ে নিন। এরপর লিপস্টিক অ্যাপ্লাই করে দেখুন লুকটা দেখতে বেশ ভাইব্রেন্ট লাগবে।

৪) লিপস্টিক অ্যাপ্লাইয়ের পর দুই ঠোঁট ফোল্ড করে মাঝের আঙুল একবার ঢুকিয়ে বের করে নিন। এতে এক্সেস লিপস্টিকটুকু আঙুলে লেগে উঠে আসবে। আবার দুই ঠোঁটের মাঝখানে একটি টিস্যু রেখে চাপ দিয়ে ধরলেও বাড়তি লিপস্টিকটুকু উঠে যাবে। এতে আর ছড়ানোর ভয় থাকবে না।

ব্যস্ত জীবনে সময় বাঁচাতে লিপস্টিক হ্যাকস

আরও কয়েকটি হ্যাকস

১) চোখে কাজল দিলে ছড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। এ সমস্যা এড়াতে ওয়াটারপ্রুফ ও সোয়েটপ্রুফ কাজল বেছে নিতে পারেন। তাছাড়া চোখে কাজল দেয়ার পর একটু পাউডার লাগিয়ে নিলেও দীর্ঘ সময় পর্যন্ত সেট থাকবে, সহজে ছড়াবে না।

২) যদি ব্রো জেল শেষ হয়ে যায়, তাহলে স্পুলিতে সামান্য হেয়ার জেল বা হেয়ার স্প্রে লাগিয়ে নিলেও ব্রো সেট থাকবে।

৩) আইলাইনার শেষ? চিন্তার কিছু নেই! এঙ্গেল ব্রাশ একটু পানিতে বা সেটিং স্প্রে দিয়ে ভিজিয়ে নিয়ে আইশ্যাডোতে ডিপ করে নিন। এবার ট্র্যাডিশনাল লাইনারের মতো লাইন টেনে নিন আইলিডে।

ব্যস্ত জীবনে যে কোনো কাজেই ছোটাছুটি অনেক বেশি আমাদের। একটু সময় নিয়ে কোনো কাজ সহজে করা হয়ে ওঠে না। তাই বলে নিজেকে সুন্দর ও আকর্ষণীয় দেখানোতে কোনো কম্প্রোমাইজ তো করা যাবে না, তাই না? আর এজন্যই ইজি কয়েকটি মেকআপ হ্যাকস আমাদের অবশ্যই জেনে রাখতে হবে। যে হ্যাকস সম্পর্কে আজ জানালাম আশা করি এগুলো আপনাদের প্রতিদিনের জীবনে বেশ কাজে আসবে। বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মেকআপ, স্কিন ও হেয়ার কেয়ার প্রোডাক্ট পেয়ে যাবেন চারদিকে’তে। চারদিকে’র দুটি আউটলেট রয়েছে বসুন্ধরা সিটি শপিং মল ও নারায়ণগঞ্জ এর চাষাড়াতে আল জয়নাল ট্রেড সেন্টারে। ফিজিক্যালি কিনতে চাইলে এই দুটি আউটলেট ঘুরে আসতে পারেন। আর ঘরে বসে প্রোডাক্ট হাতে পেতে চাইলে অর্ডার করতে পারেন চারিদিকে’র ওয়েবসাইট ও অ্যাপে।

ছবি – সাটারস্টক

1 I like it
0 I don't like it